কবিতা /বাপ্পি

গোলাম কবির এর কবিতা || একজন নির্মলেন্দু গুণ

প্রথম কাব্যগ্রন্থেই প্রেমাংশুর রক্ত চাইলে,
সেখানে হুলিয়া মাথায় নিয়ে
না প্রেমিক না বিপ্লবী হলে।
বললে কবিতা, অমিমাংসিত রমণী,
চৈত্রের ভালবাসায় পড়লে,
তারপর বন্ধু আবুল হাসানের বিরহে কাতর হয়ে ও বন্ধু আমার বলে করলে আর্তনাদ।
তারপর আনন্দ কুসুম মেখে
বাংলার মাটি বাংলার জলকে ভালবেসে
লিখলে তার আগে চাই সমাজতন্ত্র,
চাষাভুষার কাব্য ইত্যাদি কবিতা ও কাব্যগ্রন্থ।
এরপর অচল পদাবলি, পৃথিবী জোড়া গান গাইলে। একসময় সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মুখরিত হয়ে বললে দূর হ দুঃশাসন, দিলে শান্তির ডিক্রি জারি করে।
এরপর তোমার প্রথম দিনের সূর্য,
নেই কেন সেই পাখি এলো।
নিরঞ্জনের বাঁশি ও চিরকালের বাঁশি বাজিয়ে বললে দুঃখ করো না, বাঁচো।
এইভাবে একের পর এক তুমুল জনপ্রিয় সব কবিতা গুলো লিখতে লিখতে হয়ে গেলে আমাদের প্রধান ও প্রাণের কবি।

(শ্রদ্ধেয় কবি নির্মলেন্দু গুণের জন্মদিন উপলক্ষে তাঁকে উৎসর্গ করা কবিতা)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *