কবিতা

গোলাম কবির এর কবিতা || সেই তোমার কাছেই নতজানু

এরকম ঢাকা শহর কখনো দেখিনি আমি,
কেমন জানি শুনশান নীরব কবরখানা মনে হয় এখন, মানুষের মুখের হাসি ও উল্লাস উধাও,
রিকশা গুলো গলির মোড়ে অলসভাবে বসে আছে, সীটে বসে রিকশাচালক সিগারেট টানছে, গভীর দুশ্চিন্তায় হাঁসফাঁস করছে তার ভিতরবাহির ! কপালে পড়েছে চিন্তার বলিরেখা! বাচ্চারা সব স্কুল বন্ধ, তাই একটানা
টিভি দেখতে দেখতে বিরক্ত হয়ে যাচ্ছে সবাই।
যে শহরের বাসে একসময় ঠাসাঠাসি করে
মানুষ উঠতো এবং বাঁদরঝোলা হয়ে একসময় কেউ কেউ গন্তব্যে পৌঁছাতো, এখন কেউ আর বাসেই চড়ে না! সবার মুখেই মাস্ক পরা,
যা একসময় এখানে পরা হতো কোনো দূর্গন্ধযুক্ত এলাকা পার হতে কিংবা অতিবেশি স্বাস্থ্য সচেতন কোনো ব্যক্তি বিশেষ! আর এখন? পুরো দেশই মাস্ক পরিহিত করোনা ভাইরাসের ভয়ে,
সব মানুষেরা নিজে এবং পুরো দেশ যেনো বাঁচে সেইজন্য স্বেচ্ছায় গৃহবন্দীত্ব মেনে নিতে কষ্টবোধ করে না, একটা ভাইরাস কিভাবে দাপটে একে একে শেষ করছে মানুষের জীবন সুদূর চীন হতে শুরু হয়ে ইটালি, স্পেন হয়ে এই শ্যামল বাংলায়! সবাই কেমন জানি শংকিত, স্থম্ভিত!
এমন সময় আমরা নিকট অতীতে এমনকি ১৯৭১ এর স্বাধীনতাযুদ্ধের সময়ও পার করেছি বলে মনে পড়ে না আমার! হে মহান আল্লাহ –
তুমিই একমাত্র পারো আমাদের এই মহামারীর হাত হতে রক্ষা করে আবার পৃথিবীর
সকল মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে!
তাই করোনার ভয় নয় –
সেই তোমার কাছেই নতজানু হয়ে সেজদায় লুটিয়ে পড়ে অশ্রসজল হাত দুটো তুলে বলছি –
আমাদের তুমি ক্ষমা করে দাও,
পৃথিবী হতে করোনাকে দাফন করে দাও!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *