কবিতা

গোলাম কবির || শিরোনামহীন – ১৮৪

করোনায় অবরুদ্ধ এই শহরের পায়রার খোপ সদৃশ বারান্দায় বসে আছি সেই দুপুর থেকে
সন্ধ্যা অব্দি, চোখ দুটো গভীর হতাশায় বুঁজে আসছে, অকারণ ক্লান্তি নেমে আসছে শরীরের প্রতিটি অনু পরমানুতে, একটা বিষণ্ণতা ভর করে আছে সর্বদাই, রবীন্দ্রনাথ কিংবা নজরুলের গান এখন আর বিষণ্নতা দূর করতে পারছে না কিছুতেই, মসজিদের মাইকে ভেসে আসা আজান কেমন জানি গভীর বিষণ্ণতাকে আরো নিবিড় ভাবে মনে করিয়ে দেয়, পাশের বাড়ির ছাদ বাগানে আমের মুকুলের ঘ্রাণ, বৃষ্টি ভেজা বেলি ফুলের ঘ্রাণ এখন আর মনকে উদাস করে না! কেমন অস্থির সময় কেটে যাচ্ছে রাত্রিদিন,
পাঁড় মাতাল যেমন শূন্য মদের বোতলের দিকে চেয়ে থাকে পিপাসায়, আমিও তেমনি টিভি পর্দার দিকে তাকিয়ে থাকি অর্থহীন করোনার সন্ত্রাসে আর কোনো মৃত্যু সংবাদ শুনতে হবে না বলে
ভ্রম করি! হায়, তা তো আর হচ্ছে না বলে
কানে বারবার ভেসে আসে পবিত্র কোরআনে পড়া সুরা আর রহমানের সেই বিখ্যাত আয়াত –
“ফাবি আইয়্যি আলায়ি রাব্বি কুমা তুকাজ্জিবান ” এর গভীর মর্মার্থ, যা এতো দিন হয়তো বুঝিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *