কবিতা

জাহিদুল ইসলাম রুদ্র’র কবিতা || ধূসর পান্ডুলিপি

 

জীবনের অনেকটা পথ পাড়ি দিয়েছি
একা একা হেঁটেছি বহু দূর
সংসার সাধনায় ব্যাস্ত নগরীতে
ন্যাস্ত ছিলাম দিনের পরে দিন
অবিশ্রামে লাগামহীন ঘোড়ার মতো
পাড়ি দিয়েছি বার বার গোলাকার পৃথিবীটা।

সুখের সন্ধানে হাত বাড়িয়েছি
অভাবি নয়নে তাকিয়েছি অশ্রু ঝড়নে
যে ঝর্ণার অন্ত নেই, নেই বিরাম চিহ্ন
অবিরামে বর্ষার বাদলের মতো নিক্ষিপ্ত করছে ক্ষত
শিলা বৃষ্টির মতো ঝড়ছে অবিরত।

আজ আমি ক্লান্ত অক্লান্ত পরিশ্রমে
মূর্তি মান মানব সেজে ফুটে আছি কাব্যের পাতায়
ক্ষনে ক্ষনে ছিড়ে যাচ্ছে সেই ডাইরিটাও
পাতা গুলো ধূসর পান্ডুলিপির মতো বিকৃত হচ্ছে
অযত্নে অবহেলায় জীবন ভেঙ্গে চুরে তছনছ
অগোছালো শয্যার মতো লজ্জিত ।

জীবনের প্রথম কদম হতে আজ অবদি এক ফোটা সুখ পবনের তালে তালে এসে নারা দিল না
দোলা দিল না আপ্লূত করে
শুধু ভেঙ্গে দিয়ে যায় বেদনার্ত ঝড়ে।

অতি কষ্টে দীর্ঘশ্বাস ফেলে
জীবন ডাইরিটা মেলে
নির্বাক আমি স্তব্ধ হয়ে নীরবে অতি গোপনে অশ্রু ঝড়ই
যে লিপিতে লেপার কথা সোনালী পান্ডুলিপি
কর্ম দোষে সে লিপি মোর ধূসর পান্ডুলিপি
ভুলে ভুলে মহাভুলে অভিশপ্ত জীবন
তেলহীন গাড়ির মতো ইচ্ছে নেই চলার

কে আছো আমায় একটু সুখ কিনে দিবে……..?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button