কবিতা

নাঈম মাহমুদ মিথেল এর কবিতা || বোধের জমিনে বাঘের থাবা

বোধের জমিনে বাঘের থাবা,বিবেক অন্ধ বধির বোবা।
প্রেমরস শুকিয়ে মরুদ্যান থেকে শূন্য প্রান্তরে পরিণত সাহারা।
পদ্মা গ্রাস করে নেয় বোধের নিষ্প্রাণ নরম জমিন এক ধাক্কায়।
রাজ্যপতিরা সব ঈশ্বর হতে চায়,তারা ধারালো নখে খামচে ধরে বোধের গায়।

মানবের মন থেকে প্রেম উঠে যায়,
ধরিত্রীর সতীত্ব ছিড়ে এফোঁড় ওফোঁড় করে দেয় গ্রিনহাউজ গ্যাস।
টাকায় নৃত্য করে প্রেমরুপি কামনা,
প্রিয়তমারা কবিতায় হয়না আর আনমনা।

এতিম অসহায়দের ভাগের খাবার কেড়ে নেয় উপর তলার লোক,
সরকার পরিবর্তনে সিন্ডিকেটের নিয়ন্ত্রণ পরিবর্তন হয়,
কেউ বলেনা অসহায়দের রক্ত চোষা বন্ধ হোক।

কবিরা আর বিদ্রোহী হয়না জ্বলে উঠে না রোষে,
তারা কেবলি এখন প্রিয়তমাদের স্তন চোষে।

ক্ষমতাবানদের দূষিত রক্তে কিলবিলিয়ে উঠে বিদেশি প্রভুদের ডিএনএ।
তারাও ঈশ্বর হতে চায় এ জন্মের দোষ যেন মেশা রক্তে।

জন্মভূমি যেন এক উন্মুক্ত নগ্ন নারী পালাক্রমে ধর্ষণ করে যখন যারা বসে মসনদে।
বাজেটের লক্ষকোটি টাকা ঢেলে কিনে বালিশ,পর্দা, তৃপ্ত হয় জাল সনদে।

শিশুশ্রম বিক্রি করে,বঞ্চিতরা পথে পথে ঘুরে পেটের দায় রাতে রাস্তায় দেহ বিক্রি করে নারী।
উদ্বাস্তু হয় প্রেম, নগ্ন জমিন কেঁপে কেঁপে কাঁদে, রাজা লালসায় টেনে খুলে জন্মভূমির শাড়ি।

গরিব,নিঃস্ব,অসহায় ধূলিতেই পরে থাকে,
বহুরূপী ঈশ্বরেরা মাড়িয়ে চলে তাদের।
মিথ্যা ঈশ্বরেরা দখল করতে চায় প্রেমের কাবা,
ভুলে যায় আল্লাহ তো সামান্য আবাবিল পাখি দিয়েই ধ্বংস করতে পারে তাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *