কলাম

নিরব কেন রাজনৈতিক কথাসাহিত্যিক কাদের ভাই

মনে পড়ে যায়,সেই কলেজে যখন পড়তাম,আপনার লেখা বাংলার বাণীর উপসন্পাদকীয় কলাম পড়ার স্মৃতিকথা ।কলামটি ছিল এমনই ”পদ্মা দোলে দু:খের ঢেউ, ঢাকায়ই কাকের মিছিল।আজ কেন যে সেই আপনার লেখাটি মনে পড়ছে।মনে পড়ছে আমার শৈশবের অমর স্মৃতি বিজড়িত কোন্পানী গঞ্জ বসুরহাটের অনেক স্মৃতি কথা।বসুরহাট সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ও সরকারী মুজিব কলেজের ছাএ ছিলাম।রাজনীতির দুর্গম আঁকা বাঁকা পথের অনেক ঘটনা প্রবাহের নিরব স্বাক্ষী ছিলাম।কোন্পানী গঞ্জ রাজনীতির অনেক ইতিহাসের সাথে জড়িত ছিলাম।অনেক নেতার ক্ষমতার প্রভাব দেখেছি।নিজে ও কম ভুক্তভূগি হয়নি।দেখেছি সিরাজ পুটন বাহিনীর তান্ডব। দেখেছি খোকন চেয়ারম্যান এর ভাই সাহাব উদ্দীন মনার রক্তাক্ত লাশ।খোকন চেয়ারম্যান এর একক প্রভাব।দেখেছি জাসদ বাহিনীর
সন্রাস।দেখেছি জাসদ সভাপতি খিজির সাহেবকে ব্যারিস্টার মদুদ আহম্মদ এর স্রী কবি জসিম উদ্দীনের মেয়ে হাসনা মদুদের পক্ষে নির্বাচনী গাড়ির মাইকে প্রচার করতে।ব্যারিস্টার মদুদ তখন দেশের উপ রাষ্ট্রপতি। সেই ছোট্র মনে প্রশ্ন ছিল জাসদের সভাপতি হয়ে মাইকে অন্যদলের প্রার্থীর জন্য ভোট চেয়ে প্রচার করে কি ভাবে?হাসনা মদুদ এর পতিপক্ষ তখনকার তারণ্য শক্তি ছাএ নেতা থেকে সাংবাদিক কলামিষ্ট রাজনৈতিক মুজিব বাহিনীর প্রধান আমার লেখালেখি গুরু ওবায়দুল কাদের ভাই।অওয়ামী লীগের তখন দু:সময়। তখন দেখেছি আমার ছাএ রাজনীতির গুরু আব্দুল কাদের মির্জা মামাকে।কাদের ভাইয়ের পাশে বীর প্রধান সেনাপতি আব্দুল কাদের মির্জা। কাদের ভাইয়ের আপন ছোট ভাই মির্জা।মির্জা মামার পাশে আলী ইমাম চোধুরী কাজী আমিরুল ইসলাম বাবুল চোধুরী কামাল চোধুরী এমদাদ মিয়া স্হানীয় এই মেধাবী শক্তি। দ্বিতীয় সারিতে আমরা তখনকার ছাএ লীগ যুব লীগ -এখনকার মতো এতো লীগ ছিলনা।
সেই দু:সময়ের রাজনীতির কথা এখনকার রাজনৈতিক
নেতারা কখনো বিশ্বাস করবেনা।একটি নাবিস্কুর চকলেট খেয়ে সারা বাজার বসুরহাটে মিছিল করতাম।
বড় অনুষ্ঠান হলে বাশার ভাইয়ের দোকানের ছোট ছোট সিংকরা দুইটি আর কলের পানি।বাশার ভাইয়ের বাড়ি উপজেলার সামনে ছাএ লীগ নেতা ছিলেন।কেন্দ্রীয় নেতা কাদের ভাইয়ের কোন টাকা পয়সা নেই। মামলা হলে নিজ বাবার টাকা দলীয় সহযোগিতা নেই।দলের কাছে টাকা নেই ক্ষমতা নেই।এমন দু:সময়ের কোন্পানী গঞ্জ আওয়ামীলীগকে তিলে তিলে প্রতিষ্ঠিত করছে একজনই আব্দুল কাদের মির্জা।ঐ সন্রাসী নেতারা কোথায় আজ কেউ কি জানে?হারিয়ে গেল রাজনীতির রঙমহল থেকে।বড্ড জানতে ইচ্ছে করে,জাসদ সভাপতি থেকে ব্যক্তিত্বহীন খিজির হায়াতকে কোন্পানী গঞ্জ আওয়ামীলীগের সভাপতি করা হল কোন স্বার্থে?
খিজির সাহেব এর স্রীকে দুই দুইবার উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান করা হল কার স্বার্থে।কাজী আমিরুল ইসলামের পর কোন্পানী গঞ্জ আওয়ামীলীগের সভাপতি পদটি জাসদের হাতে চলে গেল।মাননীয় মন্রী প্রশ্ন থেকে গেল?আওয়ামী ত্যাগীরা কি পেল?
অনেকই বলে খিজির সাহেব মুক্তিযোদ্ধা, ঠিকই তিনি মুক্তিযোদ্ধা। প্রশ্ন বঙ্গবন্ধু মুজিবকে কারা হত্যা করল?
খিজির এর মতো স্বার্থপর মুক্তিযোদ্ধারাই হত্যা করছে।
সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশকে অস্হিতিশীল জাসদে করছে।চট্রগ্রাম পাটের গুদামে আগুন।ঈদের ময়দানে সংসদ হত্যা কারা করছে,তখনকার জাসদ পার্টি করছে।কোন্পানী গঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা কামালকে সিরাজ মিয়াকে কে হত্যা করছে? খিজিরকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসা করলে সবই বের হয়ে যাবে।মুজিব হত্যার বিচার যদি এতো বছর পর হয়,কামাল সিরাজ হত্যার বিচার কেন হবেনা?কার স্বার্থে তখনকার এই হত্যা কান্ডের বিচার হয়নি?এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের সময় ঢাকার টঙ্গীতে শ্রমিক নেতা মুক্তিযোদ্ধা শহিদ উল্লাহ খুন হল।কেন তার হত্যার কুলকিনারা হলনা।তার হত্যার পিচনে কোন্পানী গঞ্জ নেতাদের হাত ছিল কাদের ভাই জানে।শহীদ উল্লাহ কাদের ভাইয়ের স্নেহভাজন ছিল।রাজনীতি যদি এমনই নিষ্ঠুর হয়,রাজনীতি থেকে মানুষ মুখ ফিরিয়ে নেবে।এমনই এখন আর মানুষ রাজনীতিকে ভালো চোখে দেখেনা।
মানুষ বুঝে রাজনীতি মানে ধান্দাবাজী।ভাষণ মানে তোষণ।
আব্দুল কাদের মির্জা আজো জীবন্ত কিংবদন্তীর মতো আছে থাকবে।আজকের মতো এমন অনেক কঠিন পরীক্ষার সন্মুখিন আগে ও হয়েছিল।তার মেধা দিয়ে বিজয়ী হয়ছে।আমি কারোর পক্ষে বিপক্ষে নয়।সকল গ্রুপই কাদের ভাইয়ের লোক।গ্রুপ নেতারা ও আব্দুল কাদের মির্জার সৃষ্টি।তিনিই তাদেরকে নেতা সৃষ্টি করছেন।আব্দুল কাদের মির্জা যে একেবারে ভুল ক্রটির উধের্ব সেইকথা বলবোনা।উনার ও ভুল আছে।

আমার প্রশ্ন মাননীয় মন্রী রাজনৈতিক কথাসাহিত্যিক ওবায়দুল কাদের ভাইয়ের নিকট? আপনি বাংলাদেশের দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি সারাদেশ ও দল চালান। আপনার নিজ জেলা উপজেলা রক্তাক্ত কেন?নিরব কেন মাননীয় মন্রী? আপনার নিরবতার কারণে তরতাজা এক প্রতিভার জ্বলন্ত প্রদ্বীপ নিভে গেল।আজ ও রক্তাক্ত কোন্পানী গঞ্জ। নিরব কেন নেতা?আপনিতো কথাসাহিত্যিক। আপনি আলো উজ্বল নক্ষএ। আপনিতো নিরব থাকার কথা নয়।হে! রাজনৈতিক কথা সাহিত্যিক গর্জে উঠুন।আপনার কথাসাহিত্যিক এর এক কথা সকলে ঠান্ডা হয়ে যাবে।
জেগে উঠেন এবার , না হয় রক্ত ঝরবে লাশ পড়বে।
আপনার এলাকা শান্ত ছিল।আজ অশান্ত কেন?আপনাকে দেখতে হবে।উপর থেকে কোন ষড়যন্ত্র আছে কি?আপনার উচ্চ রাজনীতি আসনকে কলংকিত করার জন্য কোন চক্রান্ত আছে কি? একটু ভেবে দেখেন।আপনিতো সরল মনা,অতিবিশ্বাসতো কাল হয়ে দাঁড়ায়। আপনাকে লেখার দুঃসাহস আমার নেই।
আর তা আপনাকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করবে।আপনার সারা জীবনের অর্জন ধবংস হয়ে যাবে।সেই আপনার লেখা কলামের সূএ ধরে বলি,,,
কোন্পানী গঞ্জ এর রাজনীতিতে দু:খের ঢেউ,,,,
কোন্পানী গঞ্জে শুধু কাকের মিছিল,,,,

লেখক,,,,
কবি সাহিত্যিক সাংবাদিক
ইংরেজী জাতীয় দৈনিক
এশিয়ান এজ্ ব্যুরোচীফ সৌদিআরব।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button