কবিতা

ফরিদ আহমদ দুলাল এর কবিতা || বিষাদোত্তর পঙক্তিমালা -১

কোনো এক রাতের শেষপ্রহরে হঠাৎ আবিষ্কারের মতো
মনে হলো, আমাদের মধ্যে কতো বিকারের প্রবণতা খেলে,
বিজয়ী হবার স্বপ্ন কখন কীভাবে সদাচার খুন করে ফেলে!
অসহনীয় প্রতিটি প্রত্যাখ্যান ছিলো স্বাভাবিক
মূল্যবোধ-শিষ্টাচার খুঁজে রাত কেটে যেতো রোজ
শিকড়ের নিবিড় সন্ধান ঐতিহ্যের আত্মীয়তা জেনে
আমার গবেষণার অনুষঙ্গ হয়ে রোজ স্বপ্ন পুড়ে খায়
নৈতিকতার বিদ্যায়তন হঠাৎ কেনো যে বন্ধ হয়ে যায়;
কোনো কাজই ছিলো না পিতার স্বপ্নবুনন ছাড়া
বাণিজ্য ছিলো না কোনো সততার বিপণনে ছিলে দিশাহারা
চারিপাশে যখন অসীম প্রতিরোধ-অনাচার
নদীশাসনের নামে জলের ধারাকে স্তব্ধ করে
নাব্য নদীটি ষড়যন্ত্রের গভীরতা বোঝেনি কখনো শুধু-
প্রযুক্তির পাশাপাশি সার্বভৌমত্বের দিপ্তী চায়।

হয়তো সে রাতেই দুর্বৃত্তের মৃত্যু হতো
কিন্তু আমার বুকের যন্ত্রণা ঘুমায় শারাবান তহুরায়
লক্ষ্মিন্দর ঘুমিয়ে গেলেও কালনাগ আর বেহুলারা জাগে
দেবী মনসা তো পূজা চায় বেহুলারা ভাসে গাঙুড়ের জলে
সমুদ্রমন্থন শেষে ধূর্জটি-পিনাক নীলকণ্ঠ হয়েও সিদ্ধিতে বুঁদ
বিজয়ী হবার স্বপ্নে আমাদের ঘুম দীর্ঘতর হতে থাকে
দাঁতে বিষ নিয়ে কালসাপেরা সর্বত্র ঘোরে রাতে
ঘুমের গভীরে মৃত্যু ইশারায় ডাকে।

০১.০৮.২০১৯

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *