নিউজ সাহিত্য/ বাপ্পি সাহা

মার্কেন্টাইল ব্যাংক ২০১৮ সম্মাননা পেলেন কবি নির্মলেন্দু গুণ

আরও একটি পুরস্কার পাওয়া হলো। পুরস্কারের নাম মার্কেন্টাইল ব্যাংক সম্মাননা ২০১৮। পুরস্কার মানে শুধু চমৎকার ক্রিস্টাল ক্রেস্ট নয়। এই পুরস্কারের সঙ্গে রয়েছে একটি দুই ভরি স্বর্ণের পদক এবং তিন লাখ টাকার চেক। তার মানে এই পুরস্কার স্বাধীনতা পুরস্কারের প্রায় সমান। স্বাধীনতা পুরস্কারের সঙ্গে দেওয়া স্বর্ণপদকে থাকে এক ভরির বেশি—তিন ভরি স্বর্ণ। টাকার অঙ্কটা সমান।’ লিখেছেন কবি নির্মলেন্দু গুণ। গতকাল শনিবার ‘মার্কেন্টাইল ব্যাংক সম্মাননা ২০১৮’ পাওয়ার পর রাতে বাসায় ফিরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন তিনি।
প্রতিষ্ঠার ১৯ বছর পূর্তি উপলক্ষে গতকাল রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ের বলরুমে ‘মার্কেন্টাইল ব্যাংক সম্মাননা ২০১৮’ প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। শিক্ষা ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য কবি নির্মলেন্দু গুণকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমদ আর বিশেষ অতিথি সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। আরও ছিলেন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।
মার্কেন্টাইলক সম্মাননা ২০১৮’ পাওয়ার পর অতিথিদের সঙ্গে কবি নির্মলেন্দু গুণকবি নির্মলেন্দু গুণ আরও লিখেছেন, ‘স্বাধীনতা পুরস্কার পাওয়ার জন্য ফেসবুকে সরকারের কাছে প্রকাশ্যে দাবি জানাতে হয়েছিল। সে কারণে কিছু লোক ও লেখক আমার ওপর নাখোশ হয়েছিলেন। কিন্তু মার্কেন্টাইল ব্যাংক সম্মাননা পাওয়ার জন্য আমাকে একেবারেই লেখালেখি করতে হয়নি। আসলে এই পুরস্কারের কথা আমার জানাই ছিল না। এ রকম না চাইতে পাওয়া পুরস্কারের মজাই ভিন্ন। আমি যে না চেয়েও বড় পুরস্কার পেতে পারি, সেটা প্রমাণিত হলো। আমার মান রক্ষা হলো, আবার পেটও ভরল। তিন লাখ মানে তিন লাখই, এক টাকাও কম বেশি নয়। সমাজের বিত্তবান আর ক্ষমতাবানদের উপেক্ষা করে পথচলার পথ তৈরি হলো। আমি জানি, তিন লাখ টাকা খুব বেশি টাকা নয়। আবার এ-ও জানি, তিন লাখ টাকা খুব কম টাকাও নয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *