কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

মঈন চৌধুরীর কবিতা || ট্রেন

যে নয়নপুরে সূর্য ডোবে নাসেখানেই আমার নামার কথা ছিলো।ট্রেনের ইঞ্জিন কয়লায় চলেকয়লা-ধূলোতে চোখ অন্ধকার হয়,আমি নয়নপুরে নামতে পারলাম না। ট্রেন চলতেই থাকলো মাধাবী দোলায়অসংখ্য পদ্মফুলের পর শেষ স্টেশন,ওখানে পৌঁছে বোঝা গেল চোখ ঝরছেপথ ও ট্রেন একই বিন্দুতে স্থির ইতিহাস। চন্দ্র-ঋতুর স্রোত অবাধ্য ছায়া ফেললো মাটিতেশব্দে শোনা গেল কান্নার বিপরীত সঙ্গীতস্থির ও অস্থির বিন্দুর আপেক্ষিক সূত্র […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

স্বপ্নের ভগ্নাংশে ||মুস্তফা মুনীর

আজিমুন! আজিমুন!কাজের ভারে নুয়ে পড়া রুগ্না মায়ের অস্ফুট ডাক,ছোট্ট সংসারে, মা ও মেয়েরবাঁচার সংগ্রামে বিরামহীম ধুলিময় ঘর্মাক্ত প্রচেষ্টায় আজিমুন, তার ছুটায় তীব্রতা,হাসিতে উচ্ছ্বলতা,কথায় সরলতা।ভাবছে সে একাকী একদিন—আঙ্গিনার কাছ ঘেসেছোট্ট আমগাছটির ছায়ায় বসে,কুড়ানো কাঁচা আম কোলে,নুন আর লংকা, নির্জন দুপুরে,মোরগের ডাকদুরে কোথাও,এক নির্জনতানিয়ে যায় তাকে কোন রূপকথার দেশে,সেখানে সুন্দর দিনগুলোতে,বিশ্বস্ত নির্ভরশীল একটি হৃদয়ের কাছে..হঠাৎ মায়ের সেই […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

কবি সালমা শেফা’র একগুচ্ছ কবিতা

১। ভালোবাসি ভালোবাসি ভালোবাসি ভালোবাসিআমি ঝরি,আমি ভিজি… আমি ভালোবাসারমোহিনী মায়ায় নিজেকে পুড়িভালোবাসি ভালোবাসিকতোবার বলি,বৃষ্টির ঝড়নায়নোনাজলে খেলি…কিছু জল জমিয়ে রাখিসঙ্গোপনে…কোনো এক মাঝরাতেফেরৎ রেখে আসবোতোমার চোখের অতলেখুব যতনে। ২। ফেরারী দিন সেসব দিন ফেরারী এখনযেসব দিনে ছিলোঘোর লাগা প্রেমসকাল থেকে সন্ধ্যার মায়ায়ছিল সেআমারই ছায়ায়যে সব দিনে ছিলনিশ্বাসের কাছেকারো চুলের ঘ্রাণকারো বুকের মাঝেনিজের প্রাণ!সে সব দিনের আনাগোনানেই আরওগুলো […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

মাফরুহা মিতু আহসান এর এক গুচ্ছ কবিতা

১। আজ আমি আজ আমি অন্য আমিলিখছি না কোন  কাব্য লিখতে গিয়ে ভাবছি বেশিধন্য  তাতেই আমি ধন্য।বসে যখন ভাবছি একালিখবো কিছু ছন্দকি লিখবো কি  লিখি মিলছে না কোন শব্দ। মনকে বলি লিখবো না আরশব্দ ছন্দের খেলা প্রজাপতি মনটা যেনসাদা মেঘের ভেলা।লিখবো আবার অন্যদিনেকবিতা অল্প সল্পলিখবো আমি নতুন করেকাব্য কিংবা  গল্প। ২। খুব সকালে রোজ বিকেলে […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

তুমি সেই সুরের পিয়াসী || নাহার আহমেদ

[উৎসর্গঃ গিটার কিংবদন্তী এনামুল কবির]  শরতের এই স্নিগ্ধ সন্ধ্যায় আমাদের হৃদয় কূলেনোঙর করেছে তোমার সুরের বজরাখানা তোমার উপস্থিতি ছড়িয়ে দিতে এসেছেনানা ছন্দের রুমুঝুম আলাপন ।অনেকটা পথ অতিক্রম করেছোসুরের বন্ধনে নিজেকে আষ্টেপৃষ্ঠেজড়িয়ে আজো বেয়ে চলেছো পরিতৃপ্তির তরণী। উদাস প্রহস্রে জোনাকী মেয়েরা যখন তোমার পথ আগলে ধরে তুমি হয়ে যাও রোমাঞ্চিতহারিয়ে যাও ভালোলাগার সেই প্রহরেযেখানে তোমায় হাতছানি […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

পানশালা ভুলে যাবমূল || রুশ কবি সের্গেই ইয়েসেনিন (১৮৯৫-১৯২৫)

অনুবাদঃ মিঞা মোহাম্মদ আলী আগুন ছড়ালো – নীল লেলিহান,ভুলেছি দূরের আপন ঠিকানা।গাইছি প্রথমবার প্রেমময় গান;প্রথম ছেড়েছি কেলেঙ্কারীপনা! একটি বাগান যেন থাকে অযতনেমজে থাকি শুধু মদে ও নারীতে।অনিহা এখন নাচে আর পানে,চাইনে অপরিণত জীবন কাটাতে। ইচ্ছে করি শুধু তোমাকে দেখার,চোখে চোখ রেখে, পিঙ্গল লোচনা!মন জুড়ে গ্লানি অতীত দিনের,তবু ত‍্যাগ ক’রে কোথাও যেওনা! ক্ষীণ কটি ছন্দময় কোমল […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

একজন গিটার কিংবদন্তি || দিলীপ গুহঠাকুরতা

[উৎসর্গঃ এনামুল কবির]মধুমতি নদীর কাছে সুন্দর একটি গ্রাম,নড়াইল জেলার সেই গ্রামটি ডুমুরিয়া নাম। গ্রামের মাঝে বনেদি এক শেখের পরিবার,সেই বাড়ির একটি ছেলে মানিক নাম তার। বাবা  তাহার চাকরি করেন কোলকাতা শহরে,হুগলী নদীর পারে থাকেন বাটানগরে। নড়াগাতি ফিরে এলেন দেশ বিভাগের পরে,গ্রামে এসে মানিক কভু থাকতো নাকো ঘরে। সবুজ শ্যামল পল্লী গাঁয়ে আনন্দে আটখানা, খেলাধুলায় থাকতো […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

প্রাপ্তি || শামসুল হুদা

জীবনে শেষবার কবে প্রাণ খুলে আনন্দে হেসেছিলাম, আমি জানিনা !কিছু প্রাপ্তি বুঝি এমনি হয়- সে হাসতে হাসতে কাঁদায় আবার কাঁদতে কাঁদতে হাসায়।   আজকের দিনটা আমার জীবনের তেমনি একটি দিন। “আমার স্বপ্ন যে সত্যি হলো আজ” স্বপ্নগুলো যখন এক’পা, দু’পা করে করে পূর্ণতা’র পথে এগিয়ে যায়!   তখন সে আনন্দে আকাশ বাতাস  উদ্বেলিত হয়- নেচে উঠে শরীরের প্রতিটি […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

পথ|| শামসুল হুদা

পথ ছিলো পথিকও ছিলো যাত্রা হলো এলোমেলো।প্রেম ছিলো প্রেমিকও ছিলো ভালোবাসার ঘর ভাঙলো। সুখ ছিলো শান্তিও ছিলো দুঃখ এসে দেখা দিলো। সুর ছিলো সুরাও ছিলো কন্ঠ শুধু থেমে গেলো। আসর ছিলো বাসরও ছিলো দমকা হাওয়া ঘর ভাঙলো। চাঁদ ছিলো তারাও ছিলো মেঘের পাহাড় বাঁধ সাধলো। মন ছিলো মননও ছিলো মনের দুয়ার কপাট দিলো। আলো ছিলো […]

কবিতা জাহাঙ্গীর হোসেন/ বাপ্পি

উধাও ঠিকানায় || আমিনুল ইসলাম

হাসন রাজার ঘর নয়, অনীশ্বর আকাশ ছুঁয়েহাউজিং কোম্পানির প্রলোভের মিনার ; সে-দালানে গণিতের ঘর; ঘরে ঘরে স্টুয়ার্টমিলের মানুষ।  তাকে ঘিরে টম এন্ড জেরিআর কোকোকোলা লোভ।  আর মন জুড়েওয়ানটাইম দিন এবং ওয়ানটাইম রাত।অধিকন্ত, প্রতিটি কর্ণারে বহুবর্ণ বিজ্ঞাপন;ঠাঁই নেই! ঠাঁই নেই ! কন্দর্পের দূত ঘোরে,হাওয়ায় উড়ে গেছে তার হাতের চিরকুট।